পূর্ব বিরোধের জেরে হামলার শিকার প্রবাসফেরত মিশু

পূর্ব বিরোধের জেরে হামলার শিকার প্রবাসফেরত মিশু,

বালাগঞ্জ উপজেলার বালাগঞ্জ ইউনিয়নের মজলিশপুর গ্রামের শেখ আজিজুর রহমানের ছেলে

শেখ মিফতাউর রহমান মিশু অতর্কিত হামলার শিকার হয়ে এখন শয্যাশায়ী। ধারালো রামদার এলোপাতাড়ি কোপে মাথা-শরীরে

মারাত্মক জখম হয়েছে তার। থেঁতলে দেওয়া হয়েছে শরীরের বিভিন্ন অংশ। মাথায়-পায়ে রয়েছে অসংখ্য সেলাই।

সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরলেও ক্ষত স্থানের যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছেন মিশু।

তার শরীর নিস্তেজ হয়ে গেছে। ঠিকমতো কথাও বলতে পারছেন না। নৃশংস হামলার ভয়াবহতা তাকে তাড়া করছে।

বর্বর এই হামলার ঘটনায় মিশুর স্ত্রী বাদী হয়ে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি রাতে বালাগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেছেন, যার মামলা নং-৩।

মামলায় অভিযুক্তরা হলেন— কাজীপুর গ্রামের শিপলু মিয়া, শিপন মিয়া, টিপন মিয়া, চরভিতা গ্রামের আব্দুল মালিক,

লিটন মিয়া, শফিক মিয়া, খসরু মিয়া ও আব্দুস সালামসহ আরও ২-৩ জন।

মামলার এজাহার, প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে,

মিশু সম্প্রতি প্রবাস থেকে দেশে এসেছেন। সামাজিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে পূর্ব বিরোধের

পূর্ব বিরোধের জেরে হামলার শিকার প্রবাসফেরত মিশু

জের ধরে অভিযুক্তরা মিশুর পরিবারের ক্ষতি করার অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছেন।

২৪ ফেব্রুয়ারি সকালে মিশু বাড়ির সীমানা দেয়াল নির্মাণের কাজ শুরু করেন। এ সময় অভিযুক্ত শিপলু

ও মালিক কোনো কারণ ছাড়াই মিশুর সঙ্গে কথাকাটাকাটি করেন। পরে বেলা ২টার দিকে মিশু ও তার

বোন বাজারে যাওয়ার উদ্দেশ্যে ঘর থেকে বের হয়ে বাড়ির গেটের সামনে যান।

সকালে কথা কাটাকাটির জের ধরে গেটের কাছে পৌঁছলে তাদের কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই

ধারালো রামদাসহ দেশীয় অস্ত্র দিয়ে মিশুকে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা শিপলু, মালিক ও শিপন।

এর পর তাদের কোপ খেয়ে মিশু মাটিতে লুটিয়ে পড়েন

অভিযুক্ত লিটন, শফিক, খসরু ও আব্দুস সালাম মাটিতে পড়ে থাকা সংজ্ঞাহীন মিশু এবং তার বোনকে নির্দয়ের মতো বেধড়ক মারপিট করেন। মিশুর পরিবারের লোকজনের কান্নাকাটি শুনে পাড়ার লোকজন এগিয়ে এসে মিশু ও তার বোনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন।এদিকে হামলাকারীরা অস্ত্র উঁচিয়ে গালাগালি করে বাড়ির গেট, সীমানাপ্রাচীর ও নামফলক ভেঙে ফেলেন। নির্মাণাধীন ঘরের তিনটি দেয়াল গুঁড়িয়ে দিয়ে সীমানাপ্রাচীর তৈরির রড-ইট লুট করে নিয়ে যান। এ ছাড়া মিশুর সঙ্গে থাকা নগদ টাকা, মোবাইল ফোন, স্বর্ণের চেইন ও মিশুর বোনের কান থেকে স্বর্ণের দুল ছিনিয়ে নিয়ে গেছেন বলেও এজাহারে অভিযোগ করা হয়েছে।মিশুর স্ত্রী ও পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করে বলেন,

আমাদের সামাজিক কার্যক্রম দেখে প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে দীর্ঘদিন ধরে তারা আমাদের পরিবারের ওপর ক্ষিপ্ত ছিল। আমাদের ক্ষতি করার জন্য ষড়যন্ত্র করছিল। মিশুকে হত্যা করতে পরিকল্পিত সন্ত্রাসী হামলা করা হয়েছে। তারা গায়ের জোরে চলাফেরা করে, কোনো সালিশ-বিচার মানে না। বিগত দিনে অতিষ্ট হয়ে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে জিডিও করেছিলাম।মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বালাগঞ্জ থানার এসআই নুরুজ্জামান মামলা দায়ের ও হামলা-ভাঙচুরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এজাহারভুক্ত টিপনকে ২৭ ফেব্রুয়ারি রাতে এবং আব্দুল মালিককে ১ মার্চ রাতে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। লুটপাটের বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

আরও জানতে ভিজিট করুনঃ klub-news.xyz

About work

Check Also

জেসিআই ঢাকা ইন্ডিপেন্ডেন্টের নতুন প্রেসিডেন্ট আশফাকুর

জেসিআই ঢাকা ইন্ডিপেন্ডেন্টের নতুন প্রেসিডেন্ট আশফাকুর

জেসিআই ঢাকা ইন্ডিপেন্ডেন্টের নতুন প্রেসিডেন্ট আশফাকুর, জুনিয়র চেম্বারস ইন্টারন্যাশনাল (জেসিআই)-এর একটি অধ্যায়, জেসিআই ঢাকা ইন্ডিপেন্ডেন্ট …

Leave a Reply

Your email address will not be published.